আমি ঘরের হইনি বাহির আমায় টানে

আমি ঘরের হইনি, বাহির আমায় টানে...



বরাবরের মতনই মনে হয় আবার গান নির্ভর একটা ব্লগপোস্ট দিতে যাচ্ছি। আমি যে ইদানিং ভীষণ গান শুনি, তা একদম না। এখনকার জীবনযাত্রায় আমি গড়ে দিনে ৫ মিনিটও গান শুনি না। কোনদিনই আমি হুলুস্থূল করে গান শুনি নাই। বেশিরভাগ গান সংক্রান্ত জ্ঞান আমার হয়েছে পথে ঘাটে, অথবা বন্ধুদের রুমে গিয়ে, তাদের কথাবার্তায়। কিন্তু সংগীতের জন্য আমার মস্তিষ্ক কিছু আলাদা প্রকোষ্ঠ ডেডিকেটেডলি ফাঁকা রেখে দিয়েছে মনে হয়… নতুবা আর এত কিছু থাকতে আমি কেন যে ভালোলাগা গানগুলোকে কেন্দ্র করেই শুধু পরিভ্রমণ করতে থাকি!!
.

এই গানটির লিরিক আমার খুব পছন্দের। হয়ত একটু বিরহ বিরহ টাইপ বলেই… ভালোবাসা জিনিসটার মজার অনুভূতি ‘বিরহ’তে থাকে বলে আমার মনে হয় মাঝে মাঝেই… আহারে! কী মধুমিশ্রিত যন্ত্রণা!! কী আর করবো আমরা! মানুষ তো! এত সব অপূর্ণতার গল্প তো আর মানুষকে বলা যায়না। সে একদিন ঠিক দূর্বলতার সুযোগ নিয়ে নেবে। তাই সব চিন্তা-শংকাতে ভুগার চাইতে আকাশটাই ভালো। সে কাউকে বলে না, শুধু নীরব সাক্ষী হয়ে রয়ে যায় বছরের পর বছর, শতাব্দীর পর শতাব্দী… তাই তোমায় ভালোবেসেও যে তোমার হইনি তা কেবল আকাশটাই জানে! আগের মানুষদের জীবনেও এরকম হয়েছে, হয়তবা আগামীর চরম ‘আধুনিক’ প্রযুক্তির পৃথিবীতেও কিছু মানুষের অনুভূতিগুলো শুধু আকাশই জানবে, কোন মোবাইল বা চ্যাটবক্সের বদলে…


আমি কেন যেন দিন দিন ভালোবাসা অনুভূতিটাতে অবিশ্বাসী হয়ে যাচ্ছি। ইদানিং আমার ধারণা হতে শুরু করেছে আমার চারপাশের পৃথিবীর মানুষগুলো ভালোবাসার নাটক করে যাচ্ছে ক্রমাগত, তা কেবলি ক্রমাগত স্বার্থ পূরণের উদ্দেশ্যে। কখনো তা মনের খায়েশ, কখনো দেহের… ছেলেবেলায় আমরা যখন এই দুই চাহিদার ‘স্বার্থ’ বোঝার উর্ধ্বে ছিলাম, বোধকরি তখনকার অনুভূতিরাই ছিলো খাঁটি। তারা কিছু না বুঝেই ভালোবাসতো। ভালোবাসার মতন বলেই ভালোবাসতো। ভালোলাগাকে আগপিছু না ভেবেই বুকে ধারণ করতো।

উপরের প্যারাগ্রাফটা আমার ‘আপাতত বিশ্বাস/ধারণা। হতে পারে সময়ের সাথে সাথে তার পরিবর্তন আসবে। হয়তবা এটাই থাকবে। আসলে, অভিজ্ঞতা আর বয়স বাড়ার সাথে সাথে মানুষের দর্শনটাও শক্ত হতে থাকে বোধহয়… এখন যেমন জীবনের অনেক কিছুর ব্যাখ্যা আমি পাইনা। অতীতের অনেক কিছুর পাই। হয়ত একদিন একটা সময় আসবে, যখন প্রায় অনেক কিছুর ব্যাখ্যা দিতে পারবো।

আপাতত আর কথা বলবো না, গানের কথাগুলো শেয়ার করি। গানটা অতটা ‘বোমবাশটিং’ না। খুব হালকা সুর আর শব্দের… আমি যে ঘরের হইনি, সেইটা আমার এই গানটা শুনে দৃঢ় করে উপলব্ধি হয়… লিরিকটা দিয়ে দিচ্ছি নিচে…

[ছবি কৃতজ্ঞতাঃ জুবায়ের বিন হায়দার নাভিল, বন্ধুবরেষু। কুয়েটে ক্যাম্পাসে কাটানো সময়টাতে যার ক্যামেরার ছোঁয়াতে স্বাভাবিক প্রকৃতি আর দৃশ্যকে অপরূপ হয়ে বদলে যাওয়াটা উপভোগ করতাম…]

.

আমি ঘরের হইনি বাহির আমায় টানে
আমি তোমার হইনি শুধু আকাশটা জানে
আমি পথ থেকে পথে যাই
দূর থেকে দূরে
আমি তোমার জন্য গাই
একটা গান সুরে
আমি তোমায় ভুলে বলো যাবো কোনখানে
তাই তোমার হইনি আকাশটা জানে।

আকাশ সেথা মেশে আমার পাশের গাঁয়ে
সেথা বাতাস বলেছে আমার কানে কানে
আমি খুঁজিনি কখনো আকাশের মানে
তাই তোমার হইনি আকাশটা জানে।

আমি ঘরের হইনি বাহির আমায় টানে
আমি তোমার হইনি শুধু আকাশটা জানে
আমি পথ থেকে পথে যাই
দূর থেকে দূরে
আমি তোমার জন্য গাই
একটা গান সুরে
আমি তোমায় ভুলে বলো যাবো কোনখানে
তাই তোমার হইনি আকাশটা জানে।

——-
গানঃ লিমন
অ্যালবামঃ একতার এ গাঁথা
গান সংক্রান্ত তথ্যসূত্রঃ ইন্টারনেট

About mahmud faisal

Yet another ephemeral human being...
This entry was posted in গান, ব্লগর ব্লগর. Bookmark the permalink.

আমি ঘরের হইনি বাহির আমায় টানে-এ 19টি মন্তব্য হয়েছে

  1. নাসির বলেছেন:

    “ছেলেবেলায় আমরা যখন এই দুই চাহিদার ‘স্বার্থ’ বোঝার উর্ধ্বে ছিলাম, বোধকরি তখনকার অনুভূতিরাই ছিলো খাঁটি। তারা কিছু না বুঝেই ভালোবাসতো। ভালোবাসার মতন বলেই ভালোবাসতো।…………..”

    ভাই, মনের কথা।

  2. জুবায়ের বিন হায়দার নাভিল বলেছেন:

    এই গানটা আমার ও খুব প্রিয়… আর লেখাটা পড়তে খুব ভাল লেগেছ…লেখক এর অভিব্যক্তি চমৎকার ও প্রশংশনীয় !!

  3. lamz বলেছেন:

    golata onekta anjan dattar moto lage.. at least prothom dike. nice song!

  4. তাপস বলেছেন:

    যাক বাবা। বিদায় যে নাওনি তাতেই আমি খুশি। তোমার সঙ্গে আমিও তো প্রায় বিদায় নিয়ে বসে আছি। ভালো থেক।

  5. শাহরিনা বলেছেন:

    শিশুকাল কিংবা এই দুরন্ত কৈশোর, প্রেম আমাকে স্পর্শ করিল না এখন পর্যন্ত।😛 খিক খিক। “তখনকার অনুভূতিরাই ছিলো খাঁটি।”-ইহা তাই আমার জন্য প্রযোজ্য নহে। হু হা হা আহা…!

  6. maq বলেছেন:

    এই গানটা নিয়ে আমার স্মৃতিটা অন্যরকম, একটু ‘স্পর্শকাতর’ টাইপের। আইইউটিতে যখন থার্ড ইয়ারে ছিলাম তখন ফোর্থ ইয়ারের ফেয়ারওয়ালের সময় এই গানটাকে নিয়ে একটি মিউজিক ভিডিও বানানো হয়। সেই মিউজিক ভিডিও দেখে চোখের পানি আটকে রাখা খুব মুশকিল ছিল আমাদের জন্য। অন্যদের উপর এর প্রভাব পড়বে কিনা জানিনা, কিন্তু আইইউটিয়ানরা এটা দেখে ‘অন্যরকম’ হয়ে যায়। ভিডিওটা কিন্তু আহামরি কিছু নয়, এক ছেলে আইইউটি ছেড়ে চলে যাবার সময় তার মনে পুরনো দিনের সব ঘটনা ফ্ল্যাশব্যাকের মত করে ভেসে উঠে – এই হচ্ছে কাহিনী। কিন্তু তারপরও কেমন যেন নিজের মাঝে শূন্য শূন্য লাগে এই গানটা শুনলে।

    ** নতুন ঠিকানায় ব্লগ সরিয়ে নিলাম, কেমন হয়েছে জানিও কিন্তু!🙂

    • mahmud faisal বলেছেন:

      তানিম ভাইয়া, ভিডিওটা আমার বন্ধুদের কাছ থেকেই দেখেছিলাম অনেকদিন হলো… সুন্দর ভিডিও🙂
      আমিও লাল দুনিয়া সেই আইইউটি তে গিয়েছিলাম। সুন্দর!

      নতুন ঠিকানায় ঘুরে এলাম। ভালো লাগলো, একদম নিজের একটা ঠিকানা🙂

      • maq বলেছেন:

        হু … একদম নিজের ঠিকানা!😀

        এখন তো ডোমেইন+হোস্টিং অনেক সস্তা হয়ে গিয়েছে। তাই নিজের একটা ঠিকানা থাকলে নিজের কাছেই ভালো লাগে🙂 … আর আমি যাদের কাছ থেকে নিয়েছি ওরা অনেক পুরনো এবং বেশ রিলায়েবল কম্পানি। আর এখন আমার সাইট আগের চেয়েও দ্রুত লোড হয়!😀 কী লাগবে নাকি নিজের একটা ঠিকানা?😉

        • mahmud faisal বলেছেন:

          তানিম ভাই, নিজের একটা ঠিকানার প্রচুর শখ ছিলো ভার্সিটি থেকে বের হবার আগের কয়েকমাস। তখন উপায় ছিলো না আর অর্থসঙ্কট ছিলো। এখন সমস্যা হইলো আমি ভয় পাই। আমি যেই কিসিমের পাবলিক, তাতে এখন নিজের ঠিকানা হলে সারাদিন ঐ জিনিস মাথায় টিকটিক করবে। আসল কাজ হবে না। আর আপনার মতন করে এক ব্লগে সব নিয়ে যাবার আইডিয়া নাই, কারণ এই ইংরেজি আর বাংলা ব্লগগুলোর চেহারাসুরত ঠিক করতে জান খারাপ হয়ে গেসিলো।

          আপনারটা ওয়ার্ডপ্রেসে করা দেখলাম। আমি ওয়ার্ডপ্রেসকে খুব ভালো পাই, তাই আপনার সাইট এবং সেইটার ডেভেলপার, সবাইকেই ভালো পাইসি😀

  7. বাঁধন বলেছেন:

    পুরা লেখাটা একটা লাইনের ব্যাখ্যা মনে হয়েছে…“আমি তোমার হইনি কেবল আকাশটা জানে”……
    ভালো লেগেছে পরে মাহমুদ।

  8. রাহাত-ই-আফজা বলেছেন:

    ফয়সাল ভাই পৃথিবীর মানুষগুলো ভালবাসার অভিনয় করে কিনা আমার জানা নাই… তবে ভাল থাকার অভিনয় করে।ভালবাসার মানুষের সাথে থেকেও অনেক সময় ভাল থাকার অভিনয় করতে হয়।নিজের স্বার্থের তাগিদে নয়,ভালবাসার তাগিদে এই অভিনয়…
    লেখাটি পড়ে অসম্ভব ভাল লাগলো।গানটিও চমৎকার।

    ভাল থাকবেন।🙂

  9. sraboni বলেছেন:

    মাহমুদ আপনার লেখাটা খুব ভাল হয়েছে…আসলে এভাবে কিছু সময় ভাবতে আমরা অনেকেই ভুলে গেছি…শত materialistic হলেও আমাদের মন ও অনুভূতি গুলো ঠিক ই কথা বলে…কখন গান হয়ে, কখন বা কবিতা হয়ে সেগুলো বেরিয়ে আসে…আর আমাদের অবচেতন মন যে সবসময় সন্ধানি তার ও প্রকাশ মেলে…ধন্যবাদ লিরিক্স এর জন্য ও লেখাটা শেয়ার করার জন্য……

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s