বিদায় বাংলা ব্লগোস্ফিয়ার


এত বেশি মন খারাপ লাগছে, কোন মানুষকে ডেকে কথা বলতে গেলেই তিনি হয়ত বিরক্ত হতে পারেন। আরো অবাক হয়ে আবিষ্কার করলাম– আমার আসলে কোন মানুষ নেই চারপাশে, যাকে দু’দন্ড কথা বলে হালকা হতে পারবো। অদ্ভূত ছন্নছাড়া জীবন। মন খারাপ থাকলে ব্লগেই আসি, ইচ্ছেমতন যা মনে হয় লিখে চলে যাওয়া… এমন জীবন তো সেই অনেক অনেক আগে থেকেই চলছে আমার, নতুন কিছু কি? হুম, নতুন হলো উপলব্ধিটা।

আজকের শিরোনামটা এরকম কেন দিলাম? কারণ সিদ্ধান্ত নিলাম আমি আসলে আর লিখবো না। আমি পরিষ্কার জানি, ব্লগ জগতে আসার প্রথম দিনেই আমি বলেছিলাম, আমি মূলত তখনই লিখি, যখন আমার মন খারাপ থাকে। আমি জানি আমি শুধুই আমার মনের কথাগুলো লিখতাম। মন খারাপ হলে, বিষণ্ণতার ছবিগুলো আঁকতে চাইতাম। কিন্তু ক্রমাগত হতাশা আর বিষণ্ণতা নিয়ে নাকি লিখি– তাই অনেকে আবার আমাকে মেসেজ পাঠিয়েছেন বেশ ক’জন মানুষ। আমি লজ্জাই পেলাম সেদিন। আমিও খেয়াল করে দেখলাম আমার ব্লগের প্রথম পাতার প্রায় সবগুলো লেখাই বিষণ্ণতার ছাপ। আমার ব্লগে শুধুই বিষণ্ণতা। আমি তো বিষণ্ণ মানুষই! সব বিষণ্ণতাকে ছাপিয়ে কিছু করার আশাতে ব্লগে লুকিয়ে থাকতাম অনেক কিছু লিখে।

বিগত একটা বছরের বেশি সময় ধরে আমি অন্য অনেকের লেখা পড়তে যেতাম… বাংলা কমিউনিটি ব্লগগুলো, ব্যক্তিগত ব্লগগুলো ঘুরে ঘুরে দেখেছি। কত সম্পর্ক তৈরি হয়েছে এই ভার্চুয়াল জগত! হঠাৎ ইদানিং কিছু মানুষের সাথে কথা হবার পর নিজের উপর করুণা হয়েছে আমার– ছোট মানুষরাও কী অবলীলায় অপমান করে বসে! নিজেকে কী না ভেবে বসতে পারে! আমি মানুষকে কষ্ট দেয়ার কাজটা পারিনা বলেই বোধহয় সবাই আমাকে তা দেখিয়ে দেয় কয়েকগুণ বেশি দিয়ে…

প্রবাসে থাকা মানুষগুলো একটু বেশিই নির্মম হয় বোধহয়!! আপন ভেবে এগিয়ে গিয়ে অপমানিত হয়ে কয়েকধাপ পিছিয়ে এসেছি… অনেক করে ভাবলাম গত বেশ কয়টা দিন। এটাই স্বাভাবিক। জগতে থাকতে হলে আধিপত্য বিস্তার করে টিকে থাকতে হয়, নতুবা স্বার্থের দায়ে। এমনি আন্তরিকতা বলে কোন কিছুর স্থান আর আছে বলে আমার বিশ্বাস হয়না। তবে আমিও পারবো, আমিও সবকিছু ভুলে চলে যেতে পারবো। পারবো নিজের মতন করে থাকতে।

জগতে সবাই হয়ত সফল হয়না, অল্প ক’জন হয়। আমিও হয়ত হলাম না– আমি চলে যেতে বাধ্য হচ্ছি। আমার বাস্তবতা আমাকে কুরে কুরে খাচ্ছে। জীবনের খুব ভয়ংকর একটা মূহুর্তে আমি এসেছি। ভার্সিটি জীবন থেকে ভাবছিলাম একটা অবস্থানে যাই, তারপর হয়ত আমি ক্যারিয়ার গুছিয়ে উঠতে পারবো… অনেকদিন চলে গেলো। আমার জীবনে আসেনি অনেক কিছু, যা আসা দরকার ছিলো। একদিন আমাকে হারিয়ে যেতেই হতো– আমি বরং আগেভাগেই চলে যেতে চাইছি।

ব্লগে আমার কিছু নিয়মিত পাঠক ভাইবোন ছিলেন… নাম বলতে গেলে কেউ মিস হয়ে যেতে পারেন, তাই বলতে চাইছিনা। আমি যাদের ব্লগে গিয়ে কমেন্ট করেছি আজ অবধি– তাদের উদ্দেশ্যে বলছি– আজ আমি বাংলা ব্লগজগত থেকে বিদায় নিচ্ছি। কমিউনিটি ব্লগগুলো থেকে পালিয়ে এসেছিলাম অনেকদিন আগে। মাঝে মাঝে লিঙ্ক পেয়ে যাই, এছাড়া না। আর এই ব্লগেও আমি আর লিখবো না নিয়মিত। হয়ত মাঝে মাঝে কিছু লিখতেও পারি। কিন্তু তা আগের মতন হবে না। আমি আপনাদের ব্লগগুলোতে আর নিয়মিত যাবো না। তাই সবিনয়ে জানিয়ে দিচ্ছি আজ। কখনো যদি এমন কোন অবস্থানে পৌছুতে পারি– যখন ব্লগ জগতে ফিরে আসা সম্ভব আমার জন্য, সেদিন ফিরে আসবো। নতুবা হয়ত এভাবেই হারিয়ে যাবো একদিন। মৃত্যুর কথা ইদানিং আমার খুব বেশি মনে পড়ে। চলে যাবো যেকোন একদিন। এই এলোমেলো লেখাগুলো পড়ে থাকবে…

কখনো কখনো চিৎকার করে কাঁদতে ইচ্ছা করে। জীবনের এই ঘটনাগুলো কাউকে বলা যায়না, শুধুই ক্ষরণ… আজকের মতন দিন কম আসুক জীবনে…

About mahmud faisal

Yet another ephemeral human being...
This entry was posted in ব্লগর ব্লগর. Bookmark the permalink.

বিদায় বাংলা ব্লগোস্ফিয়ার-এ 12টি মন্তব্য হয়েছে

  1. kd বলেছেন:

    vai???? jai koren lekha bondho korien na.

  2. রেজওয়ান বলেছেন:

    ব্লগকে আমি একান্ত নিজস্ব স্পেস হিসেবে দেখি। এখানে আপনি লিখবেন আপনার মন যখন চাইবে তখনই – জোর করে নয়। মূল ব্যাপারটি হচ্ছে নিজের মনের কথা কাউকে বলার চেষ্টা করা – জেনে যে কেউ হয়ত পড়ছে বা কেউ পড়ছে বা জানছে না।

    ইংরেজীতে একটি শব্দ আছে সলিচিউড (http://en.wikipedia.org/wiki/Solitude) যা মানুষকে একটি নিজস্ব জগৎে নিয়ে যায়। আমাদের জীবনে কিছু ঘটনা আছে তা সত্যি কাউকে বলা যায়না। এমনকি নিজে তার স্মৃতিচারণ করতেও ভয় লাগে। তবে এই সলিচিউড বা ধ্যানমগ্ন অবস্থায় আমরা সেগুলো নিয়ে চিন্তা করতে পারি। এজন্যে অনেকে মেডিটেশনকে জীবন সঞ্চারি বলে।

    জীবনে ব্যর্থতা থাকবেই। কেউই নিঁখুত নয় – কারন আমরা মানুষ। তবে মাঝে মধ্যে ব্যর্থতা থেকে বের হয়ে আসতে কারও সাহায্য দরকার হয়। সেরকম ভাল কোন বন্ধু খুঁজে নেবেন। আমি শৈল্পিক ক্রিয়েশনকে ব্যর্থতা কাটানোর উপায় দেখি। নতুন কোন কিছু শখ খুঁজে বের করুন – শুধু নিজের জন্যে – ফটোগ্রাফী, কবিতা লেখা বা ছবি আঁকা। দেখবেন সেই দু:খজনক স্মৃতিগুলো প্রভাব বিস্তার আর করছে না। ভাল থাকুন।

  3. Rony Parvej বলেছেন:

    মনটা খারাপ হয়ে গেল।😦

    আমি একটা জিনিস বুঝিনা, ব্লগটা তো আপনার। আপনি যা ইচ্ছা তাই লিখবেন, ব্লগ ছাড়বেন কেন?
    বেশি অসুবিধা হলে হয়তো ছদ্মনামে লিখতে পারেন।

    দ্রুত ফিরে আসুন এই প্রত্যাশায় রইলাম।

  4. যা কিছু সহজ, তাই করেন। আমার ইদানিং লেখতে ভাল লাগে না। তাই লেখি না। ভাল না লাগলে লেখবেন না। এতোদিন লেখেছেন, একদিন না একদিন লেখতে ইচ্ছা করবে আবার…সেদিন লেখবেন।

  5. জিহাদ বলেছেন:

    সবকিছুর পরেও ভালো থাকাটাই আসল কথা ।
    তবে আমার মনে হয়না ব্লগ ছাড়লেই তুই ভালো থাকতে পারবি।
    আমি বুঝি তোর সমস্যাটা কোথায়। আমার সমস্যাটাও কমবেশি একই রকমের।
    সবকিছুর পরেও আমার বিশ্বাস করতে ভালো লাগে একদিন সবকিছু ঠিক হয়ে যাবে।

    ভালো থাকিস।

  6. নিবিড় বলেছেন:

    লেখাটা আগেই পড়ছিলাম। ভাবছিলাম একটা কমেন্ট করছি কিন্তু দেখি না করা হয় নায়। আসল কথা হল স্যার এইটা আপনার নিজের জায়গা, এখানে আপনে কীভাবে থাকবেন সেইটা পুরাই আপনার ব্যাপার। আমরা পাঠকেরা হয়ত অনেক কিছুই বলতে পারি তবে শেষ পর্যন্ত শেষ সিদ্ধান্ত আপনার। লেখায় অপমান, কষ্ট, নির্মম শব্দ গুলো দেখলাম। এগুলো নিয়েই কিন্তু জীবন। এই অভিজ্ঞতা গুলো কিন্তু একজন মানুষ কে পরিণত করে। তাই পজিটিভলি চিন্তা করেন। ভাবেন এই অভিজ্ঞতা গুলোর ভিতর দিয়ে যাওয়ার পর আপনি আর পরিণত, আর অভিজ্ঞ। আর লেখালেখি ছেড়ে দিবেন বললেন মনে হয়। যারা লেখালেখি ব্যাপারটি পছন্দ করে তারা সত্যিকার ভাবে কী এই জগতটা ছেড়ে যেতে পারে? কী জানি। মাঝেমাঝে এক জায়গায় বেশি দিন থাকলে কিছুটা গুমোট ভাব আসে তখন বিরতি নেওয়া যায় তবে অবশ্যই তা সাময়িক। কথা গুলো একটু চিন্তা কইরেন। পরে সাক্ষাতে বিস্তারিত কথা হবে🙂

  7. শাহরিনা বলেছেন:

    তোমার সাথে কথা আছে। হয় জি টকে কালকে বিকাল চারটায় থাকবা, নাইলে আমি মেইল দিচ্ছি। :[

  8. তাপস বলেছেন:

    কারোরই দাস হওয়া উচিৎ নয়, আভ্যেসেরও। যখন পড়তে ইচ্ছে করবে পড়বে, লিখতে ইচ্ছে হলে লিখবে। সম্পূর্ণ স্বাধীন। তুমিতো গান ভালবাসো, এই গানটা শুনেছ?

    সুখের কথা বোলো না আর, বুঝেছি সুখ কেবল ফাঁকি
    দুঃখে আছি, আছি ভালো দুঃখেই আমি ভালো থাকি।
    …………………………………………
    চোখের বারি দেখলে পরে, সুখ চলে যান বিরাগ ভরে।
    দুঃখ তখন কোলে করে আদর করে মোছায় আঁখি।

    ভাল থাক, আনন্দে থাক।

  9. tusin বলেছেন:

    অনেকদিন পর আমি ব্লগে আসলাম। ব্লগে এসে আপনার এই লেখাটা পড়ে মনটা আরত্ত খারাপ হয়ে গেল।
    আপনার কি সমস্যা হয়েছে তা হয়ত বুঝতে পারব না কিন্তু মনে হচ্ছে আপনি অনেক দু:খ পেয়েছেন কাউর আচরন থেকে। শুধু একটা কথা বলতে চাই
    “চল যাত্তয়া তো কোন কিছুর সমাধান হতে পারে না। চলে যাত্তয়া মানে তো পরাজয়”
    আপনি কেন চলে যাবেন ? যারা বা যে আপনাকে কষ্ট দিয়েছে সে তো আপনার এই মন খারাপ দেখে আরত্ত মজা পবে। আপনি স্বাভাবিক জীবনে থেকে তাদের কঠোর জবাব দিতে পারেন। তাদের দেখান যে আপনি ত্ত পারেন।
    অনেক কথা বলে ফেললাম । ভাল থাকবেন।

  10. sheetal বলেছেন:

    why so serious?? apni eto serious ken bhai?

  11. mahmud faisal বলেছেন:

    এই পোস্টের সবগুলো কমেন্ট অনেকবার করে পড়েছি… অন্যরকম একটা ভালোলাগা কাজ করেছে সবশেষে, সবার কথাগুলো হৃদয়াঙ্গম করে…

    ধন্যবাদ জানিয়ে এই অনুভূতিকে লজ্জা দেবনা। শুধু বলবো, আমি ক্ষণিকের জন্য হলেও নিজেকে ভীষণ ভাগ্যবান বলে ভেবেছি…

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s