এক পুরষ্কার বিতরণীর কথা

জীবনে আমরা সমস্ত শ্রমই দেই সফলতার আশায়। অনেক ত্যাগ আর পরিশ্রমের পর যখন আকাঙ্খিত বস্তুটা পাই, আনন্দে শিহরিত হই, প্রিয়জনদের কাছে আনন্দ ভাগাভাগি করতে ছুটে যাই। একটা এসএসসি বা এইচএসসি পরীক্ষার আগে কতনা পরিশ্রম, কতনা খাটাখাটনি– শুধুই সুন্দর একটা রেজাল্টের জন্য। আর খাটনির সময় যদি না খেটে থাকি, তাহলে রেজাল্টও খারাপ হয়– মন খারাপ হয়… ব্যর্থ ব্যর্থ– সবই ব্যর্থ। জীবনে এরকম একটা মাস এসেছিলো আমাদের– রামাদান কারীম। মানবজাতির কল্যাণ আর মুক্তির বার্তা নিয়ে। কত স্বপ্ন আর আনন্দের সম্ভাবনা নিয়ে! রহমত, মাগফিরাত আর নাজাতের অদ্ভূত সম্ভাবনা নিয়ে। যেই মাসে একটি সৎ কাজের বিনিময়ে আল্লাহ সত্তর গুণ থেকে সীমাহীন সওয়াব দিয়ে থাকেন… যেই মাসে কবরের আযাব বন্ধ ছিলো, যেই মাস এসেছিলো তাক্কওয়া অর্জনের সম্ভাবনা নিয়ে। রামাদানের প্রতিদান আল্লাহ নিজেই দিয়ে থাকেন। যে ব্যক্তি এই মাস পেলো আর গুনাহ মাফ করাতে পারলো না– তার মতন হতভাগা আর কেউ নেই। জানিনা কতটুকু কী পেলাম। রামাদানের শেষ দিন, শেষ জুমু’আর বিকেলে যখন কম্পিউটারের সামনে বসে কী-বোর্ড ধরেছি, তখন বুক জুড়ে অনেক শঙ্কা– হলো কি আমার মাগফিরাত অর্জন? হলো কি তাকওয়া অর্জন? পারবো তো এই শিক্ষাগুলো জীবনে ধরে রাখতে? ঈদ এর প্রকৃত আনন্দ আসলে কারা পাবেন? — যারা সমস্ত মাস ইবাদত বন্দেগি করলো, যারা রাতে তারাবিহের সালাতে পাবন্দী করলেন, যারা কুরআন তিলাওয়াতে কন্ঠকে ব্যস্ত রেখেছিলেন, যারা পানাহার আর চোখ আর মনের সম্ভোগ থেকে নিজেদের দূরে রেখেছিলেন– কষ্ট তো করেছিলেন তারা!! আনন্দের প্রকৃত অনুভূতি তো তাদেরই! অন্য সকল ধর্মাবলম্বীদের সাথে মুসলিমদের পার্থক্য তো এই ঈদেই! আমাদের নেই ঢাক-ঢোলের উৎসব, নেই অর্থের অপচয়ের ছড়াছড়ি। নেই কোন অশ্লীলতা আর নির্লজ্জ উৎসবের প্রদর্শনী, শুধুই পুরষ্কারের আশায় অন্তরের প্রশান্তি। পুরো একমাসের যেই ট্রেনিং, সংযম আর তাকওয়া অর্জনের যেই প্রচেষ্টা তাকে আগামীতেও ধরে রাখার প্রত্যয়। ঈদের দিন আল্লাহ ক্ষমা করেন অজস্র অজস্র মু’মিনকে। একটি মাসের সাধনার ফলাফল গ্রহণের দিন বলেই তো ঈদ আনন্দের। এই আনন্দ তো শুধুই উপলব্ধির, এই আনন্দ তো শুধুই আত্মার খেয়াল করার, এই আনন্দ তো শুধু অন্তরের অনুভব করার… হযরত সা’দ বিন আওস আনসারী (রা) স্বীয় পিতার বরাত দিয়ে বর্ণনা করেন যে, রসূল (সা) বলেছেনঃ

ঈদুল ফিতরের দিন ফেরেস্তারা বিভিন্ন রাস্তার মুখে দাঁড়িয়ে যান, অতঃপর বলেনঃ হে মুসলমানগণ, সেই দয়ালু প্রভুর দিকে যাও, যিনি ধন-সম্পদ দিয়ে অনুগ্রহ করেন এবং তার জন্য বিরাট পুরষ্কার দেন। তোমাদেরকে রাত জেগে এবাদত করার নির্দেশ দেয়া হয়েছিলো। তোমরা সেটা করেছ। তোমাদেরকে রোযা রাখতে আদেশ দেয়া হয়েছিলো, তোমরা তাও করেছ। তোমরা তোমাদের প্রভূর আনুগত্য করেছ। অতএব, তোমরা পুরষ্কারগুলো গ্রহণ করো। যখন তারা ঈদের নামায সম্পন্ন করে, তখন একজন ঘোষক ঘোষণা করে, তোমাদের প্রতিপালক তোমাদের ক্ষমা করেছেন। সুতরাং, তোমরা নিজেদের বাড়ির দিকে সাফল্যের সাথে যাও। এটা হচ্ছে পুরষ্কারের দিন। আকাশে এই দিনকে পুরষ্কারের দিন নামকরণ করা হয়। ১

আল্লাহ আমাদের ক্ষমা করুন। এই পুরষ্কার বিতরণীতে প্রকৃত সফলতা অর্জনের তৌফিক দান করুন। আমরা যেন সবাই ঈদের প্রকৃত আনন্দ অন্তরে উপলব্ধি করতে পারি। ঈদের এই মুবারাক সময়ে আরেকটি আমলের কথা জানিয়ে দেই। আশা করা যায় আমরা কিছু অর্জন করতে পারবো। হযরত আবু উমামা (রা) থেকে বর্ণিত, রাসূল (সাল্লল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) বলেছেনঃ

যে ব্যক্তি দুই ঈদের রাত জেগে আল্লাহর সন্তুষ্টির উদ্দেশ্যে এবাদত করে, যেদিন হৃদয়গুলো মারা যাবে সেদিন তার হৃদয় মারা যাবেনা। ২

সবাইকে অনেক অনেক শুভেচ্ছা। সবার এই দিনটা কাটুক আনন্দে, পরিবারের মাঝে, বন্ধুদের মাঝে। আর রামাদানের শিক্ষাকে আমরা জীবনে যেন ধরে রাখতে পারি, যেন এই প্র্যাকটিস আমাদের আখিরাতে নাজাত প্রাপ্তির উসিলা হয়। আমিন।

যাহোক, ‘ঈদ মুবারাক নয়’, ঈদের সুন্নাহ‌ শুভেচ্ছা হচ্ছে: ”তাকব্বালাল্লাহু মিননা ওয়া মিনকুম” অর্থঃ আল্লাহ‌ যেন আমাদের ভালো কাজগুলো [এই একমাসের যাবতীয় ইবাদত, সাদাক্বা ইত্যাদি] এবং তোমাদের ভালো কাজগুলো কবুল করেন।

পরিশিষ্টঃ ১| [তাবরানী]… [আত তারগীব ওয়াত তারহীব – ৬২১] ২| [ইবনেমাজাহ]… ব্যাখ্যাঃ “যে দিন হৃদয়গুলো মারা যাবে” — একথা বলে সম্ভবত কিয়ামতের দিনের প্রতি ইঙ্গিত দেয়া হয়েছে। [আত তারগীব ওয়াত তারহীব – ৬১৯]

About mahmud faisal

Yet another ephemeral human being...
This entry was posted in ধর্ম. Bookmark the permalink.

এক পুরষ্কার বিতরণীর কথা-এ 9টি মন্তব্য হয়েছে

  1. ইমরান মাহমুদ বলেছেন:

    ভাল লেগেছে।

  2. তাপস বলেছেন:

    ঈদের (বিলম্বিত) শুভেচ্ছা নিও।

  3. tusin বলেছেন:

    ভাল লাগল……..ঈদের শুভেচ্ছা রইল……………
    ভাল থাকুন……

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s