ক্লাস হলো শেষ, এলো যাবার বেলা


বি
শ্ববিদ্যালয় জীবনের যাত্রা শুরু হয়েছিল ৬ মার্চ ২০০৬ সালে। গত পরশু ৬ জানুয়ারি ২০১০ ছিলো শেষ দিন। শেষ বেলা, শেষ ক্লাসে যাওয়া, শেষ ক্লাস টেস্ট দেয়া… সবকিছুই শেষ হয়ে গেল।

বড় ভাইয়ার হাতের আঙুল ধরে রাস্তায় হেঁটে হেঁটে যেই কিন্ডারগার্টেনে যাওয়া দিয়ে স্কুল জীবন শুরু হয়েছিল, ক্লাস করতে যাওয়া শুরু হয়েছিল, বুঝি সেই ধারাবাহিকতার সমাপ্তি হল…
কত অদ্ভূত! কী জীবন! কত স্মৃতি!!

ছোট্টবেলায় স্কুলে যাবার আগ্রহে, আতিশয্যে বিভোর হয়ে থাকতাম… একটু ছোটাছুটি করা যাবে– অনেকজনের মধ্যে জোরে জোরে কথা বলা যাবে… অনেকের সাথে দেখা হবে…

আজ সব কিছুরই শেষ হয়ে গেলো… দীর্ধ ১৬ বছরের একটা যাত্রা শেষ! এরপর আমি ‘গ্র্যাজুয়েট’ হিসেবে স্বীকৃতি পাবো সবার কাছে… আরও পড়াশোনা ইচ্ছে হলে করো, নয়ত করিও না… এতটুকু হলেই একটা যোগ্যতা হয়ে যাচ্ছে!

আমাদের শেষ ক্লাসটি নিলেন ডক্টর কে এম আজহারুল হাসান স্যার, আমাদের হেড অফ দি ডিপার্টমেন্ট। মজার ব্যাপার হলো, আমাদের প্রথম ক্লাস নিয়েছিলেন তৎকালীন হেড প্রফেসর এম এম এ হাসেম স্যার… সুন্দর একটা মিল! আজহার স্যারের ব্যস্ততা ছিলো সেদিন, সবাইকেই অ্যাটেনডেন্স এর মার্কস দিতে চাইছিলেন। আমরা তাকে জোর করেই নাম ডাকালাম। হয়ত জীবনের শেষবারের মতন ‘প্রেজেন্ট স্যার’ বললাম… এই ক্লাসরুমে আর ক্লাস করতে আসবো না জেনেই সবাই একবার হলেও স্তব্ধ হয়ে গিয়েছিলো। যদিও বেশিরভাগ সময়ই হৈচৈ করে সময় কাটিয়েছিলাম সবাই।

আজহার স্যার CSE 2K5 এর শেষ ক্লাসটি নিলেনঃ ০৬ জানুয়ারি, ২০১০


তারপর আমরা সবাই দুইটা আর্ট পেপারে সবার কমেন্ট নিলাম। লাল, নীল, সবুজ, কালো রঙের কালির আঁচড়ে সবাই মনের কিছু জমে থাকা কথা তুলে দিলাম সেখানে… যেই ৫৮ জন মিলে ৪টি বছর অনেক কঠিন, তিক্ত, আনন্দময়, বেদনাদায়ক স্মৃতিময় সময় অতিক্রম করেছিলাম– তারা সবাই-ই সেদিন এই আয়োজনে অংশ নিয়েছি…

বামের ছবিঃ ব্যাচের সবার লেখা মন্তব্যগুলো সামনে নিয়ে বসে আমি (ডানে),
ডানের ছবিঃ ক্লাসরুমে হাসিমুখে আমাদের ব্যাচের একাংশ


কীভাবে যেন চারটি বছর চলে গেলো! টেরই পেলাম না! প্রথমে মনে হত–কীভাবে চার বছর কাটাবো এই ভয়ংকর ক্যাম্পাসে! আজ অবাক লাগে… কত দ্রুতই না চলে গেলো সুন্দর দিনগুলো (বন্ধুদের সাথে এবং ফজলুল হক হলে, অবশ্যই কিন্তু একাডেমি বিল্ডিং-এ না!)

ছেলেবেলা থেকে অনেক সময়েই ভাবতাম, কবে যে লেখাপড়ার এই অনবরত অত্যাচার শেষ হবে! আজ অনেকটাই পরিসমাপ্তি। যদিও পুরোপুরি না– হয়ত আগামীতে আরও পড়তে হবে– অনেক কঠিন করেই। তবু তো একটা সমাপ্তি!
আচ্ছা, জীবনে এত্তো ছুটে চলা কেন? শুধুই ক্রমাগত এগিয়ে চলা… আমার সহ্য হয়না…

ভাবতে ভাবতে খেই হারিয়ে ফেলি। কত্তো রকম অনুভূতি হলো আমার গতকাল থেকে! কিন্তু যখন লিখতে বসলাম, তখন আর কিছুই নেই মনে!

তবে লিখবো… সময় পেলেই লিখবো। বিশ্ববিদ্যালয় জীবনের শেষ ক’দিন আমি অনুভূতিগুলোকে জমা করতে চাই…


পরিশিষ্টঃ আমাদের KUET CSE 2K5 এর ফেসবুক ফ্যান পেজ-এ ঘুরে আসতে ক্লিক করুন এইখানে
ধন্যবাদ!😀

About mahmud faisal

Yet another ephemeral human being...
This entry was posted in ব্লগর ব্লগর. Bookmark the permalink.

ক্লাস হলো শেষ, এলো যাবার বেলা-এ 6টি মন্তব্য হয়েছে

  1. ইমরান বলেছেন:

    লেখাটা পড়ার পর যখন একটু উপলব্ধি করতে শুরু করলাম তখন খুব আবেগপ্রবণ হয়ে পড়লাম। সত্যি অনেক কিচুই শেষ হতে যাচ্ছে যেগুলো শেষের অপেক্ষায় ছিলাম আমরা। আজ সেগুলো শেষ হয়ে যাচ্ছে কিন্তু কেন জানি খারাপ লাগছে।

  2. orin বলেছেন:

    pagol,sometime u make me so emotional yar………….

  3. noboraj বলেছেন:

    এমনি করেই একদিন জীবন নামের পড়াশুনার শেষ ক্লাসটাও শেষ হয়ে যাবে…

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s